Logo
শিরোনাম
ইতা‌লি বাংলা প্রেসক্লা‌বের পূর্নাঙ্গ ক‌মি‌টি ঘোষানা ইতা‌লি বাংলা প্রেসক্লা‌বের পূর্নাঙ্গ ক‌মি‌টি ঘোষানা আলেম সমাজকে কিছু মানুষ যে ভাষায় আক্রমণ করছেন তা দুঃখজনক : ড. আসিফ নজরুল ইতালীস্হ বাংলাদেশ দূতাবাসকে দু্নীতি মুক্ত রেখে প্রবাসীদের সেবাদানের প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন নতুন রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান বেতাগীতে নৌকার মনোনয়ন পেয়ে যা বললেন এবিএম গোলাম কবির বেতাগীতে নৌকা পেলেন গোলাম কবির,ধানর শীর্ষ হুমায়ন মল্লিক হৃদয়ে অমর হোক, ভাস্কর্যে নয়,মুজানুর রহমান আজহারী ইতালির রোমে সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলী এর শরনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় ইতালীস্হ রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান কে ঢাকা বিভাগ সমিতি ইতালীর শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ইতালিতে এক বাংলাদেশি রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীর মৃত্যু

এক গ্লাস কমলালেবুর রসে প্রতিরোধ হবে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাক

প্রতিদিন এক গ্লাস কমলা লেবুর রস আপনাকে স্ট্রোকের আশঙ্কা থেকে বেশ অনেকটাই সুরক্ষিত রাখতে পারে বলে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গেছে।

গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে ব্রিটিশ জার্নাল অব নিউট্রিশনে। সেখানে দেখানো হয়েছে যারা প্রত্যেকদিন কমলা লেবুর রস খান তাদের ক্ষেত্রে ব্রেনে ক্লটের সমস্যা ২৪% কম হয়। খবর ডেইলি মেইলের।

যারা নিয়মিত কমলা লেবুর রস খান তাদের মধ্যে ১২ থেকে ১৩% হার্টের রোগে ভোগার আশঙ্কা কম হয় বলে জানা গেছে। কারণ কমলালেবুর রস আর্টারির ক্ষতিকে আটকাতে পারে।

তবে প্রক্রিয়াজাত বা প্যাকেটজাত নয়, কমলা লেবু কিনে এনে টাটকা রস করে খেতে হবে এবং অবশ্যই চিনি ছাড়া খেতে হবে বলে জানিয়েছেন গবেষকেরা।

গবেষণাটি দেখিয়েছে, চিনি থাকলে সেই কমলা লেবুর রস স্ট্রোক আটকানোর ক্ষেত্রে খুব একটা কার্যকর ভূমিকা নিতে পারে না।

নেদারল্যান্ডের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পাবলিক হেলথের গবেষকরা বলেছেন, “টাটকা কমলালেবুর রস খাওয়ার সঙ্গে স্ট্রোক আটকানোর একটা ভালো সংযুক্তিকরণ আমাদের চোখে পড়েছে। শুধুমাত্র কমলালেবুর রসই নয়, অন্যান্য বহু ফলের রসও এক্ষেত্রে যথেষ্ট উপকারী হিসেবে কাজ করতে পারে।”

ফলের রসের মধ্যে থাকা উপাদান ব্লাড ভেসেলকে রোগের থেকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে। তবে গবেষণাকারী দলটি জানিয়েছে, তারা কখনোই প্যাকেটজাত কমলা লেবুর রস খাওয়াকে সমর্থন করছেন না। এই পরীক্ষাটি করা হয়েছিল ৩৫ হাজার পুরুষ এবং নারীর ওপর. যাদের বয়স ২০ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *