Logo
শিরোনাম
ইতালীতে আসিলীয়াবাসীর উদ্যোগে প্রবাসী নারীদের ঈদ পূর্ণমিলনী জিয়াউর রহমানের ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে ইতালী বি এন পি’র দোয়া ও মিলাদ মাহফিল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ভেরনা ইতালী শাখার পরিচিতি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত অবিলম্বে জাতি সংঘকে ফিলিস্তিনিদের স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আহ্বানঃ শাহ মোঃ তাইফুর রহমান ছোটন জালালাবাদ এসোসিয়েশন ভেরোনা ইতালীর নবগঠিত কমিটির সভাপতি রায়হান, সম্পাদক ফয়জুল। প্রবাসীদের আইনি জটিলতা সমাধানে আসিলিয়ায় বিডি আসিস্তেনছা রোমা ও সিএসএন ৯৪তম শাখা উদ্বোধন বাংলাদেশ যুব সংগঠন এর সভাপতি তানভির আহম্মেদ লিটন ও সাধারন সম্পাদক প্রমিজ জামান নির্বাচিত করোনাকালে ইতালী প্রবাসী নারীদের উদ্যোগে ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত ব্রিটিশ বাংলাদেশী তরুণী নুরজাহান শিল্পী প্রেমের পাখি, ঢাকায় রিলিজ হবে ঈদের দিন জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইতালীর আয়োজনে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছে জানিয়েছেন খান সোহাগ।

ভালোবাসার জন্য কোন দিন নেই , কোন সময় নেই, কোন বয়স নেই । তার পরেও হয়তো আমরা একটি দিন কে ভালোবাসা দিবস হিসেবে স্মরণ করি । ভালোবাসা এটি একটি পবিত্র জিনিস । সবার দিনটি ভালো কাটুক সুন্দর কাটুক এই শুভ কামনা রইল ।  হ্যাপি ভ্যালেন্টাইনডে..

(ভ্যালেন্টাইন) ভালবাসা দিবস কি, এর উৎপত্তি কোথায়.??

 

 ২৬৯ সালে ইতালির রোম নগরীতে সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স নামে একজন খৃষ্টান পাদ্রী ও চিকিৎসক ছিলেন। ধর্মপ্রচার-অভিযোগে তৎকালীনরোমান সম্রাট দ্বিতীয় ক্রাডিয়াস তাঁকে বন্দী করেন। কারণ তখন রোমান সাম্রাজ্যে খৃষ্টান ধর্ম প্রচার নিষিদ্ধ ছিল।বন্দী অবস্থায় তিনি জনৈক কারারক্ষীর দৃষ্টহীন মেয়েকে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে তোলেন। 

 

এতে সেন্ট ভ্যালেইটাইনের জনপ্রিয়তার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে রাজা তাকে মৃত্যুদণ্ড দেন।সেই দিন ১৪ই ফেব্রুয়ারি ছিল।অতঃপর ৪৯৬ সালে পোপ সেন্ট জেলাসিউ ও ১ম জুলিয়াস ভ্যালেইটাইন’স স্মরণে ১৪ই ফেব্রুয়ারিকে ভ্যালেন্টাইন’ দিবস ঘোষণা করেন। খৃষ্টানজগতে পাদ্রী-সাধু সন্তানদের স্মরণ ও কর্মের জন্য এ ধরনেরঅনেক দিবস রয়েছে।

 

খৃস্টীয় এই ভ্যালেন্টাইন দিবসের চেতনা বিনষ্ট হওয়ায় ১৭৭৬ সালে ফ্রান্স সরকার কর্তৃক ভ্যালেইটাইন উৎসব নিষিদ্ধ হয়।ইংল্যান্ডে ক্ষমতাসীন উৎসব পিউরিটানরাও একসময় প্রশাসনিকভাবে এ দিবস উদযাপন করা থেকে বিরত থাকারজন্যে নিষিদ্ধ ঘোষনা করে। এছাড়া অস্ট্রিয়া, হাঙ্গেরি ও জার্মানিতেবিভিন্ন সময়ে এ দিবস প্রত্যাখ্যাত হয়।

 

ইসলামাবাদে ভ্যালেন্টাইন ডে নিষিদ্ধ

পাকিস্তানের ইসলামাবাদে ভ্যালেন্টাইন ডে পালনের সব ধরনের আয়োজন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ১৪ ফেব্রুয়ারির এ দিবসটিকে ইসলামপন্থীরা ইসলামের অবমাননা বিবেচনা করতে পারে বলে সরকার মনে করে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, ভ্যালেন্টাইন ডে পালন নিষিদ্ধ করা হয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিসার আলী খানের নির্দেশে। কিন্তু বিষয়টি এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

 

তিনি বলেন, এটা রাজধানীর প্রশাসন কার্যকর করবে এবং ডেপুটি কমিশনার প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করবে। অতীতে দেখা গেছে কট্টরপন্থী ইসলামী দল জামাত-ই-ইসলাম এই দিবসটি পালনের ক্ষেত্রে নানাভাবে বাধার সৃষ্টি করেছে। কিন্তু রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে এই প্রথম দিবসটি পালনের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছে।

 

আমাদের দেশেও ভালবাসা দিবসের নামে যুকব-যুবতিরা শতকরা ৮৫ থেকে ৯০ ভাগ সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের ছেলে-মেয়েরা অথচ তারা জানেনা এই দিবস কোত্থেকে এসেছে! এ দিবসের ইতিহাস কী! জানেনা এই দিবস পালন করা আমাদের জন্য কতটুকু বৈধ! কোন ইসু পাইলেই তা উৎযাপন করার জন্য মাতামাতি শুরু করে দেই। সব দেশ যা বর্জন করছে আমরা তা আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *