Logo
শিরোনাম
মিলানের পিওতেল্লো জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আয়োজনে ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ধন্য বাবার যোগ্য সন্তান বৃহত্তর নোয়াখালী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ঈদ পূর্ণমিলনী। বাংলাদেশ কমিউনিটির মনফালকনে ইতালি আগমনের দুইযুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে গুনিজন সংবর্ধনা ইতালীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় খোলা মাঠে ঈদ উদযাপন ইতালিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃত্যু ইতালীতে আসিলীয়াবাসীর উদ্যোগে প্রবাসী নারীদের ঈদ পূর্ণমিলনী জিয়াউর রহমানের ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে ইতালী বি এন পি’র দোয়া ও মিলাদ মাহফিল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ভেরনা ইতালী শাখার পরিচিতি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত অবিলম্বে জাতি সংঘকে ফিলিস্তিনিদের স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আহ্বানঃ শাহ মোঃ তাইফুর রহমান ছোটন

ইসলামী বিধান বিকৃতিকারী ৭১ টিভির দুই আলেম!

নাস্তিক্যবাদী মিডিয়াগুলো দিনের পর দিন চেষ্টা করছিল যে, “মামুনুল হক সাহেব ও জান্নাত আরা ঝর্ণার বিয়েই হয়নি” এটা প্রমাণ করার। কিন্তু বৈধ কোনো সম্পর্ককে অবৈধ প্রমাণ করতে যখন তারা ব্যার্থ হলো, তখন ২য় ধাপে চেষ্টা করছে মামুনুল হক সাহেবকে ব্যাভিচারী হিসাবে প্রমাণ করতে। আর এজন্য তারা এখন আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছে।

 

কিন্তু ইসলামপন্থিদের কাছে এটা প্রমাণ করতে তো কোনো মাওলানা বা হুজুর মানুষ না হলে পাবলিক খাবে না। এজন্য দু’জন আলেমকে ডেকে এনে টকশো করল। যেভাবেই হোক মামুন সাহেবকে যেনাকারী হিসাবে প্রমাণ করতেই হবে। তা না হলে নাস্তিকপাড়ায় রাতের আদার বন্ধ হয়ে যাবে। সেজন্য আজ ৭১ টিভিরা মাতাল হয়ে ঘুরছে।

 

কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য যে, তাদের জালে দু’জন হুজুরকে দেখতে পেলাম। যারা ব্যক্তি আক্রোশের কারণে ইসলামের বিধানই পাল্টে দিয়ে ৭১ টিভির সাহায্য করলেন। যখন রুহি সাব ফতাওয়া দিচ্ছিলেন যে, “বিয়ে গোপন করলে ব্যাভিচারের গুনাহ হয়” এবং মিসবাহ সাব বললেন, “প্রথম স্ত্রী না জানলে ব্যাভিচারের গুনাহ হয়” তখন সত্যি উনাদের চেহারা দু’টো দেখে নিজে নিজে খুব শরম পাচ্ছিলাম।

 

কিন্তু এ দু’জন হুজুর আবার একে অপরের ফতাওয়ায় মিল না পেয়ে টকশোতেই কামড়াকামড়ি শুরু করে দিলেন। তাদের কামড়াকামড়ি দেখে হয়তো ৭১ টিভির সাংবাদিক গুলোও হাসছিলো। তবে আমি কিন্তু দেখে মোটেই হাসিনি, শুধু লজ্জা পেয়েছি। দুটো মুরগীর ঠ্যাং আর এক টোপলা বিরিয়ানীর ধান্ধায় এরা তো সবই পারে। আহ্। বিষয়টি দেখে আজ নবীজি সা: এর হাদিসটি বারবার ধাক্কা দিচ্ছে,

 

عن أبي ذر الغفاري رضي الله عنه قال كُنْتُ أَمْشي مع رسولِ اللهِ ﷺ فقال لَغَيرُ الدَّجّالِ أخْوَفُني على أُمَّتي قالها ثلاثًا قال قُلْتُ يا رسولَ اللهِ ما هذا الذي غيرُ الدَّجّالِ أخْوَفُكَ على أُمَّتِكَ قال أئمَّةً مُضِلِّينَ

 

অর্থ: হযরত আবু যর গিফারী রা: থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, একদিন আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সাথে হাটছিলাম, তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন,

“আমি আমার উম্মতের জন্য একটি বিষয়কে দাজ্জাল এর থেকেও বেশী ভয় করি।” কথাটি তিনি ৩ বার বললেন। তখন আমি জিজ্ঞেস করলাম, “হে আল্লাহর রাসুল, সেটি কি? যেটা আপনি আপনার উম্মতের জন্য দাজ্জালের থেকেও বেশী ভয় করেনন? নবীজি সা: বললেন, “বিপথগামী এবং পথভ্রষ্ট আলেম।”

সূত্র: মুসনাদে ইমাম আহমাদ হাদিস: ২১২৯৬ তাবরানীঃ ৭৬৫৩

 

পরিশেষে উনাদের দু’জনের কাছে করজোড় অনুরোধ, মামুনুল হক সাহেবের প্রতি আপনাদের ক্ষোভ আছে জানি, সেজন্য উনার বিরুদ্ধে আরও যত ষড়যন্ত্র আছে করুন, তবে দয়া করে ইসলামের অপব্যখ্যা করবেন না। আলেম হিসাবে আপনাদের দু’জনকেই শ্রদ্ধা করি, কিন্তু ইসলামের অপব্যাখ্যা করলে সে শ্রদ্ধাটুকু আর থাকে না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *